জেলা

ক্যানিং পিয়ালী নদী থেকে নিখোঁজ ছাত্রের দেহ উদ্ধার করল পুলিশ

ক্যানিংয়ের গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আমতলা মোতীরাম হাইস্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্র আরমান সেখ(১৪)।ক্যানিং -জয়নগর সংযোগকারী ধোষা সেতু থেকে আচমকা সাইকেল সহ পিয়ালী নদী পড়ে যায় এই ছাত্র। ঘটনা টি ঘটেছিল বৃহষ্পতিবার দুপুরে, সাইকেল চালিয়ে ঢোষা ব্রীজ দিয়ে বাড়িতে ফিরছিল স্থানীয় লোকজন এবং নদীতে থাকা মাঝিরা চোখের সামনে এমন দুর্ঘটনা দেখে ছাত্রকে উদ্ধার করার কাজে তড়িঘড়ি নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে।সাইকেল উদ্ধার হলেও এই ছাত্রের কোন হদিশ পাওয়া যায়নি।যদিও নিখোঁজ ছাত্রের খোঁজে স্থানীয় লোকজন পিয়ালি নদীতে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তড়িঘড়ি বারাইপুর জেলা পুলিশের দুই থানার পুলিশ এসে উপস্থিত হয় জয়নগর ও ক্যানিং। নিখোঁজ ছাত্রকে তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ আজ তার দেহটিকে উদ্ধার করল। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ
দীর্ঘদিন ধরেই জমিজটে আটকে ক্যানিং-জয়নগর সংযোগকারী ধোষা ব্রীজের রাস্তা।অগত্যা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পুরাতন জরাজীর্ণ ব্রীজ দিয়েই যাতায়াত করছেন সাধারণ মানুষজন। অথচ প্রশাসন উদাস।জয়নগর ও ক্যানিংয়ের একমাত্র সংযোগকারী মাধ্যম পিয়ালী নদীর উপর ধোষা ব্রীজ।অন্যদিকে বাড়ির ছোট ছেলে আরমানের এমন দুর্ঘটনার কথা জানতে পেরে শোকে কান্নায় ভেঙে পড়েছে তার পরিবার সহ গোটা কচুয়া গ্রাম।নিখোঁজ ছাত্রের বাবা সামসুল হক সেখ জানিয়েছেন বাড়ির ছোট ছেলে আরমান পড়াশোনায় খুব ভালো।পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে পড়াশোনার ফাঁকে জয়নগরের ধোষা বাজারে একটি সাইকেল গ্যারেজে কাজ করতো। অন্যান্যদিনের মতো সাইকেল গ্যারেজের কাজ সেরে বৃহষ্পতিবার দুপুরে বাড়িতে ফিরছিল।আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিয়ালী নদীর উপর ঢোষা ব্রীজ থেকে সাইকেল সহ নদীতে পড়ে তলিয়ে যায়।”

Related Articles

Back to top button