কলকাতা

টালিগঞ্জের অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ালেন মিলন ভৌমিক


টালিগঞ্জ: কোভিড-১৯ র অন্ধকার ছায়ায় সারা বাংলা নিমজ্জিত। এই অন্ধকার ছায়া থেকে আলোর হাসিমুখ দেখানোর আশায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ালেন টালিগঞ্জের খ‍্যাতনামা চিত্র পরিচালক বিজেপি নেতা এবং বঙ্গীয় চলচ্চিত্র সংস্কৃতি সংঘের(বি.সি.এস.এস) একমাত্র বিজেপি এর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সংঘটন যার সম্পাদক মিলন ভৌমিক। এবং সভাপতি বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী যিনি রাজ্য বিজেপি সহকারী সভাপতি۔ লকডাউনের জেরে বন্ধ হয়ে গেছে অনেক মানুষের রোজগার। এর ফলে দুঃখের কালো মেঘ ঘনীভূত হয়েছে টালিগঞ্জের সাধারণ মানুষদের মনে। এই দুর্দিনে টালিগঞ্জের সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়ালেন বঙ্গীয় চলচ্চিত্র সংস্কৃতিসংঘ
( বি.সি.এস.এস) সম্পাদক মিলন ভৌমিক ও তাঁর সহকারীবৃন্দরা। এই লকডাউনে খাদ্যব‍্যাবস্থা সচ্ছল রাখতে বাংলার
মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিনামূল্যে রেশনের ব‍্যাবস্থা করেছিলেন। কিন্তু অনেক অসহায় মানুষ সেই সঠিক পরিমাণ মতো রেশন পাচ্ছেন না। এই কথা চিন্তা করেই মিলন ভৌমিক ও তাঁর সহকারীরা যেমন দিলীপ চন্দ্র বিজেপি নেতা তথা ভাস্কর সময় বিজেপি নেত্রী রাখি মিত্র বিজেপি নেতা এবং প্রাক্তন ৯৫ বড়দের মানিক সাহা , ৯৪ ওয়ার্ডের শর্মিষ্ঠা রাই জয়শ্রী মিতা 97 ওয়ার্ডের সুশান্ত ভট্টাচার্যী 113 নো বড়দের সুরজিৎ দেবনাথ ,111 ওয়ার্ডের জয়দেব মন্ডল রা টালিগঞ্জের বিভিন্ন ওয়ার্ডে চাল, ডাল, আটা, সবজি দরিদ্র, অসহায় মানুষদের হাতে তুলে দিলেন । লকডাউনের পর থেকেই এই কর্মসূচি চলছে।
এই কর্মসূচি প্রতিদিন চালু রাখার অঙ্গীকার করেছেন প্রত্যেকেই মিলন ভৌমিকের এই ত্রাণ পরিষেবা সম্বন্ধে আমরা জানতে চাই। উনি আমাদেরকে জানিয়েছেন, রেশন ব‍্যাবস্থার সঠিক পরিমাণ অনুযায়ী টালিগঞ্জের বিধানসভা অঞ্চলের সাধারণ মানুষেরা চাল, ডাল রেশন থেকে পাচ্ছেন না, এই কথা চিন্তা করেই এই ত্রাণ পরিষেবা। যতদিন না পর্যন্ত সাধারণ মানুষের খাদ্যের সচ্ছলতা না ফিরে আসছে, ততদিন এই ত্রাণ পরিষেবা চালু থাকবে। মিলন বাবু বলেন এই নিয়েও নিজেদের মধ্যে নানা রকম অসুবিধা চলছে আসলে একশ্রেণীর মানুষ আছে যারা . পর সমোলোচনা করেই সময় কাটায় আর এক শ্রেণী আছে যারা . কাজ করতে ভালোবাসে কোনো ফলের আশা না করে সুদী মানুষের সেবায় আনন্দ পেতে ,তিনি বলেন যে, কাজের মানুষেরা সবসময় কাজ করে চলেন। তৃণমূল কংগ্রেস এই সমস্ত মানুষদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু তাঁরা শত বাধা পেড়িয়েও ঠিক মানুষের পাশে এসে দাঁড়াবেন। তিনি আরও জানান রাজ‍্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নির্দেশে মোদিজির স্বপ্নকে সার্থক করার তাগিদে মিলনবাবু ও তাঁর সহ কর্মীবৃন্দ প্রতিটা ওয়ার্ড ভিত্তিক প্রতিটি অসহায় পরিবারের পাশে গিয়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন ۔ বি.সি.এস.এস-র কোষাধ্যক্ষ সুরজিৎ দেবনাথ বলেন, মিলনবাবুর পশে থেকে অসহায় মানুষের দের সাথে তাদের এই সংঘঠন সবসময় থাকবেন। দিলীপ চন্দ্র ও ভাস্কর সোম বলেন, তাঁরা এই ভাবে মিলনবাবুর সাতে থেকে সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে পেরে নিজেদেরকে ধন‍্য বলে মনে করছেন।
দিলীপ বাবু আরো বলেন . এর পরে উনারা চিন্তা ভাবনা করছেন . টালিগঞ্জ বিধানসভা অধীনে থাকা . প্রতিটা ওয়ার্ড কে সিনেটাইস করার বেববস্থা করার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে ۔۔মিলন বাবু বলেন বিজেপি হচ্ছে বিশ্বাস যোগ্য পরিবার এবং এই পরিবারের প্রধান অভিভাবক শ্রী মোদিজি আর মোদীজি এর একটাই নীতি সবকা সাত সবক পাস্ সবক বিশ্বাস۔যতই বাধা আসুক . আমরা এই কাজ করবো।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button