রাজ্য

লক্ষ্য তিন সপ্তাহে তিন হাজার,একহাজার জনকে খাদ্যসামগ্রী দিয়ে পাশে দাঁড়ালো অশোক রুদ্রের নেতৃত্বে ছাত্র যুব সাংস্কৃতিক পরিষদ।

আসানসোলঃ লকডাউন চলছে, প্রানান্তকর অবস্থা দৈনিক রোজগারের উপর নির্ভরশীল সাধারণ মানুষের। মমতা ব্যানার্জীর নেতৃত্বে সবার জন্য রেশন এর পরেও বাজার বন্ধ এর জন্য মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অভাবে, মানুষের পাশে দাঁড়ালো বার্নপুরের সামাজিক সংস্থা ছাত্র যুব সাংস্কৃতিক পরিষদ। এই সংস্থার তরফে বার্নপুর ও আসানসোল এলাকার প্রান্তিক এক হাজার জন মানুষকে চাল, ডাল, আলু, সোয়াবিন ইত্যাদি খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট দেওয়া হয়। পশ্চিমবঙ্গ তৃনমুল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি র রাজ্য সভাপতি ও যুব তৃনমুল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অশোক রুদ্র এই ছাত্র যুব সাংস্কৃতিক পরিষদের আহ্বায়ক। প্রত্যেক সপ্তাহে এক হাজার জন করে মোট লকডাউনের তিন সপ্তাহে তিন হাজার জনকে আসানসোল নগরনিগমের বিভিন্ন ওয়ার্ডে সাহায্য করার এই প্রয়াসে এগিয়ে এসেছেন মমতা ব্যানার্জীর আদর্শে দীক্ষিত ছাত্র, যুব ও শিক্ষকরা। যুব তৃনমুলের অমিত সেন, স্বপ্লিল সিংহ, বিরজু দাস, তৃনমুল ছাত্র পরিষদের সোমনাথ দত্ত, দেবগুরু মিত্র,তৃনমুল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির বুদ্ধদেব সমাদ্দার, সৌম্যদীপ ঘোষ, অমিতাভ দাস ও মাধ্যমিকের রাজীব মুখার্জি। মূলত তাদেরই উদ্যোগে এলাকার অনান্য মাস্টারমশাই, স্থানীয় যুব তৃনমুল ও মূল তৃনমূল নেতৃত্ব ও কাউন্সিলর দের সহযোগিতায় এই কার্যক্রম বিগত চার দিন ধরে চলছে। রাজ্য প্রাথমিক ক্রীড়ার মুখ্য সংযোজক অশোক রুদ্র জানান, ছাত্র যুব সাংস্কৃতিক পরিষদ সারা বছর ধরেই বিভিন্ন ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ায়, বর্তমানে বিশ্ব ব্যাপী করোনা মহামারী সারা বিশ্বে মানুষকে যে মহাবিপদে ঠেলে দিয়েছে, লকডাউন ও সোসাল ডিসট্যান্টসিং ই একমাত্র এই মহামারী প্রতিরোধের উপায়। অশোক বাবু আরও জানান তাঁরা এবারে এক হাজার মানুষকে সাহায্য করেছেন, ৬ ই এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় দফায় আরও একহাজার মানুষকে সাহায্য করার হবে ও তারপরে তৃতীয় পর্যায় হবে। তিনি এই পরিষদের সকল সদস্য,সমস্ত শিক্ষক, শিক্ষিকা, যুব কংগ্রেসের সকল সদস্যকে ধন্যবাদ জানান এই কাজে অংশগ্রহণের জন্য। তিনি আরও জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী, যুব তৃনমুলের সভাপতি অভিষেক ব্যানার্জী ও শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে প্রথম পর্যায়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা প্রাথমিক শিক্ষক শিক্ষিকারা মুখ্যমন্ত্রীর এমারজেন্সি ত্রাণ তহবিলে সাহায্য করেছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button